ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ৪ ফাল্গুন ১৪২৮, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

অতিরিক্ত চা পানের ক্ষতিকর দিক



অতিরিক্ত চা পানের ক্ষতিকর দিক

বৃষ্টির দিন এক কাপ চা সহজেই মন চনমনে করে দেয়। সেই সঙ্গে মেজাজও হয় ফুরফুরে। অফিসে, বন্ধুদের সাথে আড্ডায়,পরিবারের সাথে,বই পড়ার ফাঁকে, অবসরে এক কাপ চা নতুন করে প্রাণ ফিরিয়ে দেয়। কিন্তু অতিরিক্তি চা খেলে হিতে বিপরীত হতে পারে। তাহলে স্বাস্থ্য ভালো রাখতে দিনে কতবার চা খাবেন চলুন জেনে নেওয়া যাক।

কতটা চা পান করবেন?

এক কাপ চায়ে ক্যাফেইনের পরিমাণ  ২০-৬০ মিলিগ্রামের মধ্যে থাকে। সুতরাং, প্রতিদিন ৩ কাপের বেশি চা না পান করার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

শরীরে আয়রন শোষণ ক্ষমতা হ্রাস করে
চায়ের মধ্যে পাওয়া ট্যানিন প্রচুর পরিমাণে গ্রহণ করলে শরীরের আয়রন শুষে নেওয়ার ক্ষমতা কমায়। কলোরাডো স্টেট ইউনিভার্সিটির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চা আয়রন শোষণের ক্ষমতা ৬০ শতাংশ পর্যন্ত কমিয়ে আনতে পারে।  যাদের এমনিতে আয়রনের ঘাটতি আছে তাদের এক্ষেত্রে আরো সমস্যা হতে পারে।

ওষুধের প্রভাব হ্রাস করতে পারে
সমীক্ষায় দেখা গেছে, অতিরিক্ত চা খাওয়া কিছু অ্যান্টিবায়োটিকের কার্যকারিতা হ্রাস করতে পারে। চা কেমোথেরাপির ওষুধ, ক্লোজাপাইন এবং গর্ভনিরোধক ওষুধের উপর প্রভাব হ্রাস করতে পারে।

মাথা ঘোরা
চা এমনিতে মাথা ব্যাথা কমালেও অতিরিক্ত চা পান করলে মাথা ঘোরাতে পারে। দিনে ৪০০-৫০০ মিলিগ্রামেরও বেশি ক্যাফেইন গ্রহণ করলে এমন হতে পারে।

গর্ভাবস্থার জটিলতা

গর্ভাবস্থায় বেশি পরিমাণে চা খাওয়া  ঝুঁকি বাড়িয়ে তোলে। এতে গর্ভপাত এবং শিশুর জন্মের উপর প্রভাব পড়তে পারে। গর্ভবতী হওয়ার সময় ২০০ মিলিগ্রামের বেশি ক্যাফেইন খাওয়া উচিত নয়।


   আরও সংবাদ